Lead Newsআন্তর্জাতিক

সম্পর্ক উন্নয়ন করতে চায় তুরস্ক-আমিরাত

নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তুরস্ক ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। উভয় দেশের এমন পদক্ষেপ এসেছে মূলত এ মাসের শুরুর দিকে দীর্ঘ তিন বছরের দ্বন্দ্বের অবসান ঘটিয়ে কাতারের সঙ্গে সৌদি আরব, আমিরাত, বাহরাইন ও মিশরের সংহতি ও স্থিতিশীলতা চুক্তি স্বাক্ষরের পর।

তুর্কি গণমাধ্যমগুলোর মতে, আঙ্কারার কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে যে, বিগত তিন বছরে নিজেদের দৃঢ় অবস্থানের কারণে আবুধাবি ও রিয়াদের প্রতিক্রিয়ার পাশাপাশি সম্প্রতি উপসাগরীয় পুনর্মিলনের পর সরকার ইতিবাচক বার্তা পেয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি যেটা অবাক করেছে, তা হলো আমিরাতের কাছ থেকে সম্পর্ক উন্নয়নের প্রস্তাব।

সূত্র জানিয়েছে, আঙ্কারা এই বার্তাগুলোকে ইতিবাচকভাবে গ্রহণ করেছে এবং আবুধাবির সংস্পর্শে রয়েছে। তাছাড়া, সম্প্রতি আঙ্কারায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের নতুন রাষ্ট্রদূত হিসেবে টুগাই টুনারকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

বিশ্লেষকরা বিশ্বাস করেন যে, নতুন রাষ্ট্রদূতের নিয়োগ দুই দেশের সম্পর্কের উন্নতিতে অবদান রাখবে। ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের ক্ষেত্রেও সিনিয়র কূটনীতিক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

এর আগে গত সপ্তাহে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আনোয়ার গারগাশ তুরস্কের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার জন্য তার দেশের আগ্রগের কথা প্রকাশ করেছিলেন।

তিনি বলেছিলেন, তুরস্ককে বলতে চাই যে, আমরা সার্বভৌমত্বের জন্য পারস্পরিক শ্রদ্ধার কাঠামোর মধ্যে আমাদের সম্পর্ককে স্বাভাবিক করতে চাই।

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − six =

Back to top button