আন্তর্জাতিক

ট্রাম্পের অপসারণ দাবী মার্কিন মুসলিম নারী প্রতিনিধির

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে যখন ইলেকটোরাল কলেজ ভোট গণনা চলছিল, ঠিক তখনই বুধবার ঐতিহ্যবাহী ক্যাপিটল ভবনে ন্যাক্কারজনক হামলা চালায় ট্রাম্প সমর্থকেরা। ইতোমধ্যে দেশটিতে রব উঠেছে মেয়াদ শেষ হবার আগেই ট্রাম্পকে অপসারণ করবার। আর দেশব্যাপী মার্কিন প্রেসিডেন্টের অপসরণের এই সুরে সুর মেলালেন ট্রাম্পের ধারাবাহিক সমালোচক মিনেসোটা প্রতিনিধি ইলহান ওমর।

বুধবার হামলার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ইলহান লেখেন, ডোনাল্ড জে ট্রাম্পকে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভদের দ্বারা অভিযুক্ত এবং মার্কিন সিনেটের মাধ্যমে প্রেসিডেন্টের অফিস থেকে বিতাড়িত করা উচিৎ। তাকে আমরা কিছুতেই আর অফিসে থাকতে দিতে পারিনা। এটা আমাদের প্রজাতন্ত্র রক্ষা করার প্রশ্ন আর আমাদেরকে অবশ্যই আমাদের শপথ বাক্য পালন করা উচিৎ।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এমন দাবী কিন্তু নতুন কোনো ঘটনা নয়। এর আগেও ২০২০ সালের শুরুতে ট্রাম্পকে হাউজে অভিযুক্ত করা হলেও যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট ট্রাম্পকে অফিস থেকে অপসারণের বিরুদ্ধে রায় দেয়।

বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল ভবনে ট্রাম্প সমর্থকদের হামলায় বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় উঠেছে। ফলে দেশটিতে শান্তির মাধ্যমে ক্ষমতা হস্তান্তরের যে ঐতিহ্যবাহী ধারা চলমান ছিল তা ব্যহত হয়েছে। ক্যাপিটল ভবনে এই হামলার ফলে ইলেকটোরাল ভোট গণনাও বাধাপ্রাপ্ত হয়। যদিও পরবর্তীতে জো বাইডেনকে সরকারিভাবে কংগ্রেসে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের প্রথম কয়েকজন মুসলিম নারী প্রতিনিধিদের একজন ইলহান ওমর যিনি বরাবরই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সমালোচনা করে থাকেন। অবশ্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পেরও দীর্ঘদিনের লক্ষ্য বস্তুও তিনি। সংবাদ সংস্থা এসোসিয়েটেড প্রেস জানিয়েছে, সোমবার ইলহানের রাজ্য মিনেসোটায় ১১ সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলা নিয়ে ইলহানের মন্তব্যেরও কঠোর সমালোচনা করেন ট্রাম্প।

উল্লেখ্য, ইলহান ওমর একজন সোমালি-আমেরিকান। তিনি দাবী করেছিলেন, এই সন্ত্রাসী হামলায় তার নিজের সহ অনেক মানুষের জীবন ঝুঁকিতে রয়েছে। জবাবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা যেখানে প্রশ্নের মুখে পড়েছে, সেখানে ইলহান ওমর নিজের অকৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন।

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 − seven =

Back to top button