বিচিত্র

করোনায় মৃত মালিক, ৩ মাস ধরে হাসপাতালে অপেক্ষায় পোষা কুকুর

কুকুরের এমন প্রভুভক্তির নানা উদাহরণ আগেও অনেকবারই পাওয়া গিয়েছে। তেমনি আরেকটি ঘটনা ঘটেছে চীনের উহানের একটি হাসপাতালে। করোনায় মৃত্যু হয়েছে মালিকের, তবুও তাঁর জন্য হাসপাতালে তিন মাস ধরে বসে রইল পোষা কুকুর।

এমন কাহিনী বললেই মনে পড়ে যায় জাপানি কুকুর হাচিকোর কথা। মৃত মালিকের জন্য নয় বছর এক জায়গায় অপেক্ষা করেছিল সে। হাচিকোর সেই কাহিনী এখন গল্পগাথায় পরিণত হয়েছে।

জানা যায়, চীনের উহান প্রদেশের হুবেই অঞ্চলের তাইকং হাসপাতালে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ফেব্রুয়ারি মাসে ভর্তি হয়েছিলেন ৭১ বছর বয়সী মংগ্রেল। এরপর হাসপাতালে উপস্থিত হয় তাঁর পোষা কুকুর জিয়া বাও। সেখানে কুকুরটি অপেক্ষা করতে থাকে তার মালিকের ফেরার। কিন্তু, মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যেই চিরনিদ্রায় শায়িত হন মংগ্রেল। করোনা ভাইরাসকে হারিয়ে তাঁর ফিরে আসা হয়নি আর। তবে হাসপাতাল থেকে ফিরে আসেনি তাঁর পোষা কুকুর জিয়াও বাও। দীর্ঘ তিন মাস মনিবের সুস্থতার খবর পাওয়ার জন্য হাসপাতালের লবিতে অপেক্ষা করে গেছে সে।

কিছুদিন পর হাসপাতালের কর্মীরা তাকে সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে দূরে রেখে আসেন। কিন্তু ফের হাসপাতালে ঢুকে পড়ে জিয়া বাও। হাসপাতাল কর্মীরা তার মনের কষ্ট বুঝতে পেরে যতটা সম্ভব তার খাবারের ব্যবস্থা করেন। কিন্তু করোনার পরিস্থিতিতে একটি কুকুরের দিকে নজর দেওয়া তাঁদের পক্ষেও সম্ভব ছিল না।

এপ্রিলে চীনে উঠে যায় লকডাউন। হাসপাতালের মধ্যে থাকা একটি সুপারমার্কেটও খোলে তখন। লকডাউন ওঠার পরে কুকুরটির দায়িত্ব নেন দোকানের মালিক ইউ কুইফেন। দ্য মেট্রো সংবাদপত্রে তিনি জানিয়েছেন, “এপ্রিল মাসে কাজে ফেরার পরে কুকুরটিকে আমার চোখে পড়ে। আমি ওকে জিয়া বাও নাম দিয়েছি। এখন এই নামেই ওকে ডাকি।”

পরে জিয়া বাওকে উহানের একটি ডগ শেল্টার কেন্দ্রে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, কুকুরটিকে ডগ শেল্টার কেন্দ্রে পাঠানোর সময় হাসপাতাল চত্ত্বর মোটেই ছাড়তে চাইনি সে, পাছে মালিককে হারিয়ে ফেলে।

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve + 20 =

Back to top button
Close