কূটনীতিজাতীয়

২৬ বাংলাদেশি হত্যার কঠোর নিন্দা জানিয়েছে লিবিয়ার সরকার

লিবিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় মিজদাহ শহরে ২৬ জন বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় কঠোর নিন্দা জানানোর পাশাপাশি হত্যাকারীদের বিচারের আওতায় আনার অঙ্গীকার করেছে লিবিয়ার সরকার।

লিবিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক শোক বার্তায় এ নিন্দা জানানো হয়। সোমবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

শোকবার্তায় এই হত্যাকাণ্ডকে ‘কাপুরুষোচিত কাজ’ উল্লেখ করে হত্যাকারীদের বিচারের আওতায় আনার অঙ্গীকার করেছে লিবিয়ার সরকার। বার্তায় নিহতদের পরিবার ও বাংলাদেশ সরকারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয়েছে।

এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত ও বিচারের বিষয়ে লিবিয়ার সরকার গৃহীত পদক্ষেপগুলো নিহতদের পরিবার ও বাংলাদেশ সরকারকে জানানো হবে বলে শোকবার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে।

লিবিয়ায় ঘটে যাওয়া মর্মান্তিক ঘটনায় ঢাকাস্থ লিবিয়ার বাংলাদেশ দূতাবাস দেশটির সরকারকে এরইমধ্যে ভারবাল নোট পাঠিয়েছে। ঢাকার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও লিবিয়ার সরকারকে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

এদিকে আজ লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি নিহতের ঘটনায় মানব পাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা কামাল হোসেন ওরফে হাজী কামালকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

জানা যায়, সকালে র‌্যাব-৩-এর একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানীর গুলশান থানার শাহজাদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গত ২৮ মে লিবিয়ার সাহারা মরুভূমি অঞ্চলের মিজদা শহরে ২৬ বাংলাদেশিসহ ৩০ জনকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এতে আহত হয় আরও ১১ জন।

বাংলাদেশিসহ ওই অভিবাসীদের লিবিয়ার মিজদা শহরের একটি জায়গায় টাকার জন্য জিম্মি করে রেখেছিল মানব পাচারকারী চক্র। এ নিয়ে একপর্যায়ে ওই চক্রের সঙ্গে মারামারি হয় অভিবাসী শ্রমিকদের। এতে এক মানব পাচারকারী নিহত হয়। তারই প্রতিশোধ হিসেবে সেই মানব পাচারকারীর লোকজন এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড ঘটায়।

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − 15 =

Back to top button