ফুটবল

মেসির জোড়া গোলে লাইপজিগকে হারাল পিএসজি

ফুটবলের আর্জেন্টাইন জাদুকর লিওনেল মেসির পিএসজির হয়ে অভিষেক ঘটেছে বহুদিন আগেই। কিন্তু বার্সেলোনার সেই মেসিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না এতোদিন।

এবার প্যারিসের মাটিতে সেই চেনা মেসিকে দেখা গেল। তার জোড়া গোলে লাইপজিগকে হারাল পিএসজি। হয়ত পিএসজির হয়ে আজ প্রথম হাটট্রিকের স্বাদটা নিতে পারতেন মেসি। কিন্তু পেনাল্টি শটে সেই সহজ সুযোগটা না নিয়ে এমবাপ্পেকে দিলেন। যদিও পেনাল্টি থেকে গোল পাননি ফরাসি ফরোয়ার্ড। নইলে জয়ের ব্যবধানটা আরো বাড়ত।

এ ম্যাচে খেলেননি পিএসজির ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার জুনিয়র। সে অভাব অবশ্য বুঝতে দেননি মেসি ও এমবাপ্পে। পেনাল্টি মিস করলেও এ ম্যাচেও দুর্দান্ত খেলেছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। মেসির সঙ্গে জুটি বেঁধে উড়িয়ে হারিয়েছেন শক্তিশালী প্রতিপক্ষকে।

ম্যাচের শুরুতেই ফরাসি ফারোয়ার্ডের দারুণ গোলে পিছিয়ে পড়ে লাইপজিগ। পরে দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়ে পর ঘুরে দাঁড়ায় তারা। পরে সাত মিনিটের ব্যবধানে জোড়া গোল করে দলকে অসাধারণ এক জয় এনে দিলেন লিওনেল মেসি।

পাক দি ফ্রাঁসে মঙ্গলবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচটি ৩-২ গোলে জিতেছে পিএসজি। ম্যাচ শুরুর ৯ মিনিটে মাঝমাঠের উদ্দেশ্যে বল বাড়ান মার্কিনিয়োস । সে বল রিসিভ করে এমবাপ্পেকে পাস দেন ইউলিয়ান ড্রাক্সলার। বল ধরে এগিয়ে দুরন্ত গতিতে লাইপজিগ বক্সে ঢুকে নিচু শটে গোল করেন লিড এনে দেন এমবাপ্পে।

দারুণ এক পাল্টা আক্রমণে ২৮তম মিনিটে সমতায় ফেরে তারা। সতীর্থের লম্বা ক্রস বাঁ দিকে পেয়ে বক্সে ঢুকে আনহেলিনো কোনাকুনি পাস দেন ছয় গজ বক্সে আর প্রথম ছোঁয়ায় জোরালো শটে পিএসজির জালে বল জড়িয়ে দেন আন্দ্রে সিলভা। প্রথমার্ধে পিএসজি ৭০ শতাংশ সময় বল দখলে রাখলেও ১-১ সমতায় বিরতিতে যেতে হয়।

দ্বিতীয়ার্ধে নেমেই আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করে লাইপজিগ। ফলাফলও পায় তারা। ৫৭তম মিনিটে বাঁ থেকে আনহেলিনোর ক্রস ছয় বক্সের মুখে পেয়ে ডান পায়ের ভলিতে গোল করেন নর্দি মুকিয়েলে। ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় লাইপজিগ।

দলকে সমতায় ফেরাতে বেশি সময় নেননি মেসি। ৬৭তম মিনিটে এমবাপ্পের কাটব্যাকে প্রথম ছোঁয়ায় মেসির নেওয়া শটে বল গোলরক্ষকের হাত ছুঁয়ে পোস্টে লেগে ফিরে আসে। ছুটে গিয়ে দ্বিতীয় টোকায় স্কোরলাইন ২-২ করেন মেসি।

এর সাত মিনিট পর ৭৪তম মিনিটে ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টিটি পায় পিএসজি। সফল স্পট কিকে দলকে জোড়া গোল পূর্ণ করেন মেসি। ৩-২ ব্যবধানে এগিয়ে যায় পিএসজি। মূলত এটাই ছিল ম্যাচের জয়সূচক গোল।

কারণ যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে আশরাফ হাকিমি ডি-বক্সে ফাউল করে লাইপজিগের ডিফেন্ডার। রেফারির বাঁশিতে দ্বিতীয় পেনাল্টিটি পায় পিএসজি।

হ্যাটট্রিক চান্স আসে মেসির। কিন্তু নিজে শট না নিয়ে এমবাপ্পেকে দেন। উড়িয়ে মেরে হতাশ করেন ফরাসি তারকা। তবে এতে জয় হাতছাড়া হয়নি। তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে তাদের পয়েন্ট ৭ নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে ফিরেছে পিএসজি।

ব্রুজকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দেওয়া ম্যানচেস্টার সিটি ৬ পয়েন্ট নিয়ে আছে দুইয়ে। ৪ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে বেলজিয়ান চ্যাম্পিয়ন ব্রুজ। তিন ম্যাচে সবকটিতে হেরে গ্রুপের তলানিতে লাইপজিগ।

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 − 5 =

Back to top button