Lead Newsদেশবাংলা

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নারীদের ঝাড়ু মিছিল!

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ৭নং রায়গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলী হোসেন অপুর বিচার দাবি ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল করেছে নারীরা। এ সময় বিক্ষোভ সমাবেশও অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার বিকাল ৪টার দিকে দুলাল মুন্দিয়া গাজেম আলী মাদ্রাসা মাঠে এ বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে গ্রামবাসী। বিক্ষোভ সমাবেশে ইউনিয়নের সর্বস্তরের মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, রোববার রাত সাড়ে ৭টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে রায়গ্রাম ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে ভোটে ফেল করায় প্রতিপক্ষ বিজয়ী মেম্বর প্রার্থীর কর্মী যুবলীগ নেতা তুহিন রেজাসহ কয়েকজনকে পিটিয়ে আহত করা হয়। এ সময় দুটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

গ্রামবাসীর অভিযোগ, ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি তুহিন রেজাসহ কয়েকজনকে মারধর করেন চেয়ারম্যান আলী হোসেন অপু ও তার লোকজন। এ সময় দুটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। হামলার ঘটনার পরপরই গ্রামবাসীরা একত্রিত হয়ে ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে। খবর পেয়ে পুলিশ ও কালীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে বিচারের আশ্বাস দিলে আধাঘণ্টা পর এলাকাবাসী অবরোধ তুলে নেয়। এ ঘটনার পর থেকেই চেয়ারম্যান পলাতক ছিলেন।

ওই এলাকার বাসিন্দা উপজেলা যুবলীগের সদস্য আব্দুস সামাদ জানায়,  ৭ নং রায়গ্রাম ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পুরুষ মেম্বর পদে ভোটের ফলাফলে টিউবওয়েল প্রতীকের প্রার্থী নজরুল ইসলাম ফেল করে। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে লোকজন নিয়ে রাত ৭টার দিকে বিজয়ী ফুটবল প্রতীকের প্রার্থী ইসমাইল হোসেনের কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় বিজয়ী প্রার্থীর ভাই তুহিন রেজাসহ কয়েকজনকে মারপিট ও দুইটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

মারধরের শিকার ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি তুহিন রেজা বলেন, ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর দুলাল মুন্দিয়া বাজারে আলী হোসেন অপু তার সঙ্গে থাকা লোকজন তাকে মারধর করেন। এ ব্যাপারে জানতে চেয়ারম্যান আলী হোসেন অপুর মোবাইলে সোমবার সাড়ে ৬টার দিকে ফোন দিলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, ভোট পরবর্তী হামলার ঘটনার সংবাদ পেয়েই তিনি ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। তবে কোনো বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেনি। এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষই থানাতে কোন অভিযোগ দেয়নি বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, রোববার অনুষ্ঠিত তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৭নং রায়গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আলী হোসেন অপু।

 

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

1 × two =

Back to top button