জাতীয়

নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে করা হয়েছে বিদ্যুৎ উৎপাদনের রোডম্যাপ

২০৩০ সাল পর্যন্ত নবায়নযোগ্য জ্বালানি হতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের রোডম্যাপ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

আজ বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে কপ-২৬ রিজিওনাল অ্যাম্বাসেডর ফর দ্য এশিয়া প্যাসেফিক অ্যান্ড সাউথ এশিয়ার কেন ও ফ্লাহার্টির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, “নবায়নযোগ্য জ্বালানি নীতিমালা বাস্তবায়নে বছরভিত্তিক পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারে বাংলাদেশ দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনাও গ্রহণ করেছে।”

সাক্ষাৎকালে ক্লিন পাওয়ার ও এনার্জির দিকে অগ্রসর হওয়ার বিকল্প, জ্বালানি পরিবর্তন সংক্রান্ত বিনিয়োগ, নাবায়নযোগ্য জ্বালানির অংশ বৃদ্ধি, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “কার্বনের নিঃসরণ শূন্যের কোটায় নেওয়াকে সমর্থন করে বাংলাদেশ পরিকল্পনামাফিক কাজ করছে। ইলেকট্রনিক ভেহিকেল ব্যবহার সংক্রান্ত নীতিমালা করা হচ্ছে। সৌর বিদ্যুৎ প্রসারে প্রচুর অকৃষি ভূমি প্রয়োজন, যা বাংলাদেশের মতো ঘনবসতি এলাকায় অত্যন্ত কঠিন।”

‘বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ ও বায়ুবিদ্যুৎ নিয়েও কাজ হচ্ছে। ভারত থেকে সৌরবিদ্যুৎ এবং নেপাল ও ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আনার পরিকল্পনা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্লাইমেট ভারনারেবল ফোরামের সভাপতি হওয়ায় নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারে বাংলাদেশ প্রতিনিয়ত অ্যাডভোকেসি করছে’ যোগ করেন প্রতিমন্ত্রী।

এসময় বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার রাবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন উপস্থিত ছিলেন।

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 + 7 =

Back to top button