Lead Newsদেশবাংলা

তিস্তায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত, বন্যার আশঙ্কা তীরবর্তী এলাকায়

ভারি বর্ষণ আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের কারণে তিস্তার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। আর এতে করে নদী তীরবর্তী মানুষ নতুন করে বন্যার আতঙ্কে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

শুক্রবার ভোর রাত থেকে পানি বাড়তে থাকায় ইতিমধ্যে তিস্তার তীরবর্তী বিভিন্ন চরাঞ্চলসহ নিম্নাঞ্চলগুলো প্লাবিত হয়ে পড়েছে। এতে করে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েক হাজার পরিবার। পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে নদীর উভয় তীরে তৃতীয় দফা ভাঙন শুরু হয়েছে।

পানি বৃদ্ধির ফলে নীলফামারী জেলার জলঢাকা, ডিমলা, লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম, কালিগঞ্জ, হাতিবান্ধা, আদিতমারী উপজেলা, রংপুরের গঙ্গাচড়া, কাউনিয়া ও পীরগাছা উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে পড়েছে। এসব এলাকার নদী তীরবর্তী ও নিম্নাঞ্চলের মানুষ তাদের ঘর-বাড়ি থেকে মালামাল সরিয়ে নিয়ে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে শুরু করেছে।

লালমনিরহাট জেলার পাট গ্রাম উপজেলার দহগ্রাম, হাতীবান্ধার গড্ডিমারী, সিঙ্গামারি, সিন্দুর্না, ডাউয়াবাড়ী, পাটিকাপাড়া, কালীগঞ্জ উপজেলার ডাউয়াবাড়ী, নোহালী, ভোটমারী ও চর বৈরাতি, আদিতমারী উপজেলার পলাশী ও মহিষখোচা, সদর উপজেলার রাজপুর, খুনিয়াগাছ, গোকুণ্ডা ইউনিয়নের তিস্তাবাজারসহ নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। নদী ভাঙনের ফলে এসব এলাকার প্রায় পাচঁশতাধিক পরিবার ঘরবাড়ি অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছে।

নদীর পানি বাড়ার সাথে সাথে এসব এলাকায় আবারো নতুন করে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। এসব এলাকার অধিকাংশেই ইতিমধ্যে বানের পানি ঢুকে পড়েছে। অনেক বাড়িই এখন হাঁটু পানির নিচে অবস্থান করছে।

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 − 1 =

Back to top button