Breakingখেলাধুলাফুটবল

আমি ব্রাজিলিয়ান না হলে আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করতাম: নেইমার

দুই লাতিন পরাশক্তির ধ্রুপদি দ্বৈরথ শুরু হতে ২৪ ঘণ্টাও সময় নেই।

বাংলাদেশ সময় রোববার সকাল ৬টায় রিও ডি জেনিরোর ঐতিহাসিক মারাকানা স্টেডিয়ামে লাতিন ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা।

ফুটবলপ্রেমীদের জন্য স্বপ্ন ছুঁয়ে দেখার মতোই এক ধ্রুপদি লড়াই। যে লড়াই ঘিরে দুই ভাগে ভাগ হয়ে যায় গোটা বিশ্ব। চোখে চোখ রেখে চায়ের কাপে ঝড় তোলেন দুই দলের সমর্থকরা।

বাংলাদেশে তো কিছু কিছু স্থানে দুই দলের সমর্থকদের মধ্যে উত্তপ্ত পরিবেশ বিরাজ করে। সবচেয়ে বেশি তর্কজুড়ে দুই দলের সেরা তারকা নেইমার ও মেসিকে নিয়ে। বর্তমান সময়ে এদের মধ্যে কে সেরা- তা নিয়ে বাগবিতণ্ডার শেষ নেই।

অথচ নেইমার এবারের কোপায় অকুণ্ঠ সমর্থন জানিয়েছেন আর্জেন্টিনা ও মেসিকে। ভূয়সী প্রশংসা করেছেন আলিবেসেলেস্তেদের।

যদিও এ সমর্থন ফাইনালের আগ পর্যন্ত। উল্টো ফাইনালে আবেগী হয়ে যে সব ব্রাজিলিয়ান আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করছে তাদের ওপর ক্ষেপেছেন তিনি।

পাশাপাশি সমর্থনের বিষয়টি স্পষ্ট করেছেন সেলেকাওদের সামনে। তিনি জানিয়েছেন, ব্রাজিলিয়ান না হলে শুধু কোপায় নয় আর্জেন্টিনাকে সবসময় সমর্থন করতেন তিনি।

ফাইনালের আগে ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশনের পাঠানো ভিডিওবার্তায় নেইমারকে এ কথা বলতেই শোনা গেল।

ব্রাজিল ফুটবলের পোস্টার বয় বলেছেন, ‘এটা আমার প্রথম কোপা আমেরিকা ফাইনাল হতে যাচ্ছে। এটা জিততে আমি আমার সবটুকু উজাড় করে দেব।’

এরপর বন্ধু মেসি ও তার দল আর্জেন্টিনার প্রতি আবেগী হয়ে ওঠেন নেইমার। বলেন, ‘আমার দেখা সেরা খেলোয়াড় মেসি। এটা আমি সব সময় স্বীকার করি। সে আমার দারুণ বন্ধু। তবে এখন যেহেতু ফাইনালে সে, আমরা প্রতিপক্ষ। এখানে বন্ধুত্ব চলবে না। আমি এই শিরোপা জিতে ইতিহাসে অংশ হতে চাই। আমি খেতাব জিততে চাই।

আবার মেসিও তার প্রথম শিরোপার জন্য লড়াই করছে। এটা আমি জানি। এর জন্য আমার আবেগ কাজ করে। কারণ আর্জেন্টিনার হয়ে শিরোপা জেতার জন্যই মেসি অনেক লড়াই করেছে। আসলে আমি যদি ব্রাজিলিয়ান না হতাম তাহলে সবসময় আর্জেন্টিনাকেই সমর্থন করতাম। যেমন ২০১৪ বিশ্বকাপে জার্মানির বিপক্ষে আর্জেন্টিনার খেলায় আমি মেসিদের জন্য প্রার্থনা করেছিলাম।’

নেইমার আরও বলেন, ‘ব্যাপারটা এমন যে, আপনার বন্ধু যখন অন্যের সঙ্গে লড়বে, তখন আপনি বন্ধু পাশে দাঁড়াতেই হবে। কিন্তু সেই বন্ধু যদি আপনার প্রতিপক্ষ হয়, এমনকি ভিডিওগেম খেলায়ও। আপনি চাইবেন তাকে হারাতে।’

তথ্যসূত্র: ফুটবল ইস্পানা

এই জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 2 =

Back to top button